iPhone

আইফোন কেনার আগে জেনে নিন জরুরী কিছু বিষয়

 

সেকেনহ্যান্ড আইফোন কিনতে চাচ্ছেন? মনে মনে ভাবছেন একটি আইফোন কিনবো? নতুন কিংবা সেকেনহ্যান্ড যে কোন ধরণের আইফোনই কিনেন না কেন আপনাকে আইফোন কেনার আগে নিচের বিষয়গুলো অবশ্যই খতিয়ে দেখতে হবে।

আমরা অনেকেই না জেনে না বুঝে কিছু সেকেনহ্যান্ড ফোন ক্রয় করে থাকি। ফলে এমন কিছু ঝক্কি ঝামেলার মধ্যে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে যা খুবই মারাত্মক হতে পারে।

তাই একটি সেকেনহ্যান্ড এন্ড্রয়েড স্মার্ট ফোন কিংবা আইফোন কেনার আগে অর্থাৎ, সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোন কেনার আগে আমাদের নিচের বিষয়গুলো অবশ্যই যাচাই করতে হবে।

যদি সেকেনহ্যান্ড ফোন ক্রয় করি তবে নিচের বিষয়গুলো জানা দরকার।

যেহেতু আমরা একটি সেকেনহ্যান্ড আইফোন কেনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছি তার মানে আমরা কিন্তু নিশ্চয় জানি, আইফোনের সুবিধা কি? আইফোন এর সুবিধা অসুবিধা ও নিশ্চয় আমাদের জানা আছে!

হতে পারে একটি পুরাতন ফোন কেনা আর নিজের বিপদ ডেকে আনা। তাই সাধু সাবধান। নিচের বিষয়গুলো ভালভাবে পর্যবেক্ষন করেই কেবল একটি সেকেন্ডহ্যান্ড ফোন কেনার সিদ্ধান্ত নিন। 

হয়তো অনেক বড় ক্ষতির হাত থেকে আপনার বাঁচার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

১) সমস্ত ডাটা এবং সেটিংস ডিলেট করে দিন

আইফোন কেনার আগে (iphone kena)  যাচাই করে নিন। ফোনটির মাঝে কোন মেইল লগ ইন করা থাকলে তা ডিলিট করে নিন।

আপনি যখন একটি সেকেনহ্যান্ড স্মার্ট ফোন কিংবা আইফোন কিনবেন তখন অবশ্যই ফোনের সকল ডাটা এবং সেটিংস ডিলেট করে দিবেন।

তাহলে অনেক বড় ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে পারবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। এটি করার জন্য নিচের পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

প্রথমে সেটিংস এ যান অতপর, Setting > General > একেবারে নিচের দিকে Reset > সেখান থেকে Erase all contents & setting এ যান।

কিছুক্ষণ অপেক্ষা করেন। দেখবেন ফোনটি নতুনের মত অবস্থায় চলে এসেছে।

পূর্বে যদি কোন ডাটা এতে বিশেষ উপায়ে সংরক্ষিত রাখা হয় তবে তা সরিয়ে ফেলার ব্যবস্থা করুন। সেটা যে কোন প্রকারেই হউক।

 

২) আইক্লাউড চেক করুন

আইফোন কিনতে চান তো? একটি সেকেনহ্যান্ড আইফোন কেনার সময় আপনি প্রথমেই যে জিনিসটা দেখবেন তা হচ্ছে এর iCloud Settings এখানে যাবার পর যদি কোন ইমেইল এড্রেস থাকে তবে ফোনটি লক অবস্থায় আছে।

আপনাকে অবশ্যই এই লক খুলতে হবে। এর জন্য জিমেইল একাউন্টটি ডিলিট করে দিন। এব প্রয়োজনে নতুন একটি মেইল যা আপনি ব্যবহার করেন দিয়ে দিন।

যদি লক খুলতে সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তবে একজন অভিজ্ঞ পাবলিকের সাথে যোগাযোগ করেন।

 

আইফোন কিনতে চাই

 

যদি কোন কারণে এই কাজটি না করেন তবে পরবর্তীতে অনেক বড় সমস্যায় পড়তে পারেন। তাই সাবধানে ফোনটি ক্রয় করুন।

 

৩) ফোনের হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ চেক করুন

একটি আইফোন কেনার আগে ফোনের হার্ড ডিস্ক চেক করে নিন। অনেকেই রয়েছেন বিষয়টির অত গুরুত্ব দেন না।

একটি বিষয় বলে রাখি একটি সেকেনহ্যান্ড ফোন যখন ক্রয় করবেন আপনাকে অবশ্যই নানান বিষয়ের পাশাপাশি এটি চেক করতে হবে।

কেননা অনেক ক্ষেত্রে আপনাকে বলবে একরকম আর দেখবেন পরে হয়েছে অন্যটা। তাই হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ খেয়াল করবেন।

এটি যেন অবশ্যই বিক্রেতার বলা কথার সাথে মিলে যায়। না মিললে ফোনটি নেবার কোন দরকারই হয় না।

অনেক ফোনে খেয়াল করবেন ফোন মেমরী দেখাবে ৬৪ জিবি। দুভার্গ মাত্র ৩৪ জিবি ফাইল না রাখতেই ফাইল রাখার জগায়গা শেষ!

 

৪) আইটিউন লগ চেক করবেন

আইটিউন লগ আইফোনের একটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য। আপনি একটি সেকেনহ্যান্ড আইফোন খুঁজছেন তার মানে এর আগে এমন ফোন ব্যবহার করেছেন।

সুতরাং আপনার একটি অ্যাপল আইডি থাকার কথা। 

যদি থেকে থাকে তো অবশ্যই বিক্রেতার ফোনটি নিয়ে তাতে অ্যাপল আইডি লগ ইন করুন। সেই সাথে প্রয়োজনে দু-একটি অ্যাপ নামিয়ে দেখুন।

ব্যাটারির খবর নেবার জন্য Battery Doctor নামের একটি অ্যাপ আছে। যা ফোনের ব্যাটারির চৌদ্দ গোষ্টীর তথ্য আপনাকে এনে দেবে।

চার্জিং সময় কতটা নেবে, চার্জ কতক্ষণ যাবৎ সাপোর্ট দিবে সব বিষয় জানতে পারবেন ছোট্ট এই অ্যাপটির মাধ্যমে।

 

স্মার্ট ফোন কিনুন

 

৫) মাইক্রোফোন চেক করুন

আপনার পছন্দের সেকেনহ্যান্ড আইফোন কেনার আগে কাউকে কল করে দেখুন। তার মাইক্রোফোন ঠিকঠাক কাজ করছে কি না?

সাউন্ট কোয়ালিটি কেমন যাচাই করে নিন। বিষয়টি এড়িয়ে যাবেন না। পরে পস্তাতে হতে পারে। তাই সাধু সাবধান।

একটি মোবাইল ডিভাইসের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হচ্ছে মাইক্রোফোন। যথাযথভাবে কথা শোনার জন্য, বিভিন্ন অডিও কিংবা ভিডিও গান শোনা আর দেখার জন্য মাইক্রোফোন বেস্ট অপশন।

অডিও, ভিডিও, ইয়ারফোন সব চেক করে দেখুন। ঠিকঠাক মত কাজ করছে কি না? যাচাই করে নিন। মনে রাখবেন একটি ফোন এক দিনের জন্য কিনছেন না।

তাই অনেক বিষয় খতিয়ে দেখার পরই কেবল একটি সেকেনহ্যান্ড আইফোন আপনি কিনতে পারেন।

 

৬) রেকর্ডিং অপশন চেক করুন

আইফোনের বিল্ট ইন রেকর্ডিং অপশন Voice Memo চেক করে নিন। আপনার মধুর কন্ঠস্বর এতে সুন্দরভাবে আবদ্ধ হচ্ছে কি না দেখুন।

যদি কোন গোলমাল মনে হয় তবে না নেয়ায় ভাল। মনে রাখবেন একটি আইফোন চেক করাতে গেলেও আপনাকে মিনিমাম ২০০০ টাকা গুণতে হবে।

 

৭) আইএমইআই নাম্বার দিয়ে বয়স যাচাই করুন

IMEI-International Mobile Equipment Identity একটি ফোনের একক পরিচিতি নম্বর। এটি দিয়ে আপনি ফোনের বয়স চেক করতে পারবেন।

অবশ্যই যাচাই করে নিন। না হলে অনেক সমস্যায় পড়তে পারেন। এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণএকটি ফ্যাক্টর। একে মাথায় রাখুন।

 

8) ফোনটি চুরি হয়ে যাওয়া কি না?

আপনাকে যাচাই করে দেখতে হবে ফোনটি চুরি হয়ে যাওয়া কি না? যদি এমন হয় তবে এমন ফোন অল্প টাকায় হলেও নেবার কোন দরকার নাই।

কেননা, একটি ফোন চুরি হয়ে গেলে তার সাথে অনেক বিষয় জড়িত থাকতে পারে। তাই পরবর্তীতে ঝামেলা এড়ানোর জন্য এমন ফোন না কেনাই আপনরার জন্য বেটার।

 

আবার যদি একটি নতুন স্মার্ট ফোন কিংবা আইফোন ক্রয় করতে চাই তবে নিম্নোক্ত বিষয়গুলোর প্রতি খেয়াল রাখা দরকার।

 

একটি নতুন স্মার্ট ফোন কিংবা আইফোন কেনার আগে আপনাকে অবশ্য অবশ্যই কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

এক্ষেত্রে আপনি উপরের ২, ৩, ৪, ৫ নম্বর পয়েন্টগুলো অবশ্যই দেখবেন। সেই সাথে নিচের বিষয়গুলো দেখবেন।

 

র‌্যাম, রম দেখে নিন

র‌্যাম একটি ডিভাইসের অস্থায়ী মেমরী। যখন একটি স্মার্ট ফোন কেনার সিদ্ধান্ত নেবেন তখন এটি যত বেশি নিতে পারেন তত ভাল হয়।

ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস চালু করার পর তার মাঝে অনেকটা সময় ধরে কিছু অ্যাপস অনেকগুলো তথ্য সাময়িকভাবে সংরক্ষণ করে রাখে। 

এই কাজটি একটি র‌্যাম সম্পন্ন করে থাকে। সুতরাং র‌্যামের পরিমাণ যত বেশি হবে তত বেশি পরিমাণ তথ্য সংরক্ষণ করা সম্ভব।

অপরদিকে,

র‌ম হচ্ছে একটি ডিভাইসের স্থায়ী মেমরী। এখানে আপনি স্টোরেজ এর সীমা অনুযায়ী তথ্য স্থায়ীভাবে সংরক্ষণ  করে রাখতে  পারেন।

পরবর্তীতে প্রয়োজন অনুযায়ী যে কোন সময় সেই ডাটা ব্যবহার করতে পারেন।

একটি স্মার্ট ফোন ক্রয়ের পূর্বে আমাদের দেখা উচিত তাতে কি পরিমাণ র‌্যাম এবং রম রয়েছে? আপনার বাজেট অনুযায়ী মডেল ভেদে র‌্যাম, রম জাস্টিফাই করে ফোন ক্রয় করুন।

এছাড়াও বাড়তি কিছু বিষয় আপনার খেয়াল রাখা দরকার।

  • অপারেটিং সিস্টেম লেটেস্ট আছে কি না দেখুন
  • পাওয়ার বাটন ঠিকঠাক কাজ করছে কি না দেখে নিন
  • ওয়াইফাই এবং ব্লুটুথের সাড়া শব্দ ঠিক আছে কি না যাচাই করুন
  • ফোনের যাবতীয় বাটন চেক করুন। সব কাজ করছে কি না?
  • আইফোনের একটি মজার বিষয় রয়েছে স্ক্রিণের বাইরে টাচ করলে ডিসপ্লে ডিম হয়ে যায়। এটি না হলে ফোনটি ক্রয় করবেন না।

এই বিষয়গুলো ভালভাবে খেয়াল করলে আমি আশা রাখছি আপনি খুব সহজেই একটি সুন্দর ফোন ক্রয় করতে পারবেন।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন,

এন্ড্রয়েড বনাম আইফোন, কোনটি সেরা?

 

ফটোকপি মেশিন কেনার আগে জেনে নিন (গোপন ট্রিকস)

 

 

পোস্টটি কেমন লেগেছে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না যেন। নিত্যটিউনের সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

আল্লাহ্ হাফেজ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *