api

API কি? উদাহরণসহ এপিআই এর প্রয়োজনীয়তা

 

API কি? Application Programming Interface (API ) কে সংক্ষেপে API বলা হচ্ছে। আমরা আজকে উদাহরণসহ API এর ব্যবহার এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করবো।

তাহলে আমাদের আজকের আয়োজন,

What is api in bangla ?

API কি? (What is API?)

API আসলে কি? আপনি জানেন কি যে,অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রাম কি? কম্পিউটার কি আমাদের ভাষা বুঝতে পারে? অবশ্যই না। আবার যদি নাই বোঝে তাহলে রেজাল্ট জেনারেট করে কেমনে?

কথা হচ্ছে কম্পিউটার শুধুমাত্র 0 এবং ১ এর  হিসাব কষতে জানে। আপনি যাই লিখেন না কেন সে তা এই দুই অক্ষরে কনভার্ট করে আমাদের রেজাল্ট দেয়।

তার মানে হচ্ছে কম্পিউটারের ভাষা হিসেবে স্বীকৃত ০ এবং ১। এপিআই হচ্ছে ঠিক এমনই একটি প্রোগ্রাম।

এর মাধ্যমে এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে কিংবা এক প্রোগ্রাম থেকে অন্য প্রোগ্রামে ডেটা জেনারেট করা হয়।

অর্থ্যাৎ,

এপিআই বা অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস  হল অনেকগুলো ফাংশনের সমষ্টি। তাহলে অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রাম কাকে বলে? এর মাধ্যমে কোন কম্পিউটার কিংবা অ্যাপ্লিকেশন অন্য একটি মাধ্যমকে সার্ভিস তথা তথ্য বিনিময় করে থাকে।

সফটওয়্যার তৈরী করা কোম্পানি সমূহ এগুলো তৈরী করে থাকে। একটি সফটওয়্যার অন্য একটি সফটওয়্যারের সাথে সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে সাধারণত এপিআই ব্যবহার করা হয়।

 

অ্যাপ্লিকেশন মানে কি

 

সহজ কথায়,

এপিআই একটি ডিভাইসকে অন্য একটি ডিভাইসের সাথে কানেক্ট করে।

API বলতে কী বোঝায়? নিশ্চয় ক্লিয়ার, কি এখনও হয় নাই, তাহলে দেখুন তো নিচের উদাহরণগুলো!

তাহলে বলুন তো এপিআই এর কাজটা কি?

 

 

এপিআই এর উদাহরণ

প্রিন্টার ব্যবহার করে কিছু প্রিন্ট দেওয়া

ধরে নিচ্ছি আপনি একটি প্রিন্টার ব্যবহার করে প্রিন্ট করে থাকেন। কখনও চিন্তা করছেন কি এই যে প্রিন্টার আপনি ব্যবহার করছেন,

এটি কি কোন টেক্সট এডিটর ব্যবহার করে? অর্থ্যাৎ, আপনি মাইক্রোসফট ওয়ার্ড কিংবা এক্সেল এর ডাটা প্রিন্ট করবেন।

API বলতে কী বোঝায়?

কিন্তু প্রিন্টারে কোন এডিটর নাই। তাহলে আপনার প্রিন্ট  হবে কি করে?

প্রিন্টার কিভাবে বুঝবে যে তাকে কমান্ড দেয়া হয়েছে তুমি গরুটি বেঁধে আসো 😛 সরি পেইজটি প্রিন্ট করো। এই হালুয়াটা তৈরী করে এপিআই নামক প্রোগ্রাম বাবাজি।

আবার,

এপিআই কি তো জানা হয়ে গেল এবার চলুন আমাদের দৈন্দদিন জীবনে এপিআই এর প্রয়োজনীয়তা কি? তা বরং জানা যাক,

 

অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রাম কি

 

ফেসবুকের সাথে মেসেঞ্জার কানেক্ট

আজকে কম্পিউটার ব্যবহার করছিলাম। এটা ছিল ডেস্কটপ। ফেসবুকে কেউ ফোন করছে। যেহেতু মাইক্রোফোন এবং ক্যামেরা নাই তাই ফোনটি রিসিভ করতে  পারলাম না।

এখন তাকে বললাম যে ফোন থেকে ট্রাই করছি। ফোনের মধ্যে যখন ফেসবুক ওপেন করলাম, মেসেজ ওপেন করার সময় দেখি, মেসেঞ্জারে লগইন হচ্ছে।

 

System Softwareও  Application Softwareএর মধ্যে পার্থক্য

 

এই যে ফেসবুকের সাথে মেসেঞ্জার কানেক্ট করা আছে। লগইন হচ্ছে। এই প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করা হয়েছে এপিআই এর মাধ্যমে।

আমরা বিভিন্ন সময় ওয়েবসাইট ভিজিট করলে লগইন, রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। হাজার হাজার একাউন্টধারীর একাউন্ট থাকে একেকটা ওয়েবসাইটে।

কোনটা খুঁজে পেতে যাতে কোন সমস্যা না হয় তার জন্যই মূলত এপিআই ব্যবহার করা হয়।

 

ব্যবহার

এপিআই কেন ব্যবহার করা হয়? আমি ধরে নিচ্ছি আপনার একটি ওয়েবসাইট আছে। এটি সিএমএস ব্যবহার করে ডিভেলপ করা।

এখন বর্তমান সময়ের টপ মোস্ট সিএমএস ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করা হয়েছে।

এখন কিছুদিন পর আপনি চাচ্ছেন এটাকে অ্যাপ্লিকেশন আকারে মার্কেটপ্লেসে আনতে। তো তার জন্য কি করতে হবে।

আপনাকে অবশ্যই এই এপিআই বাবাজিকে সরণ করতে হবে।

অথবা,

আপনি চাচ্ছেন সাইটটিকে জুমলা সিএমএস এ ট্রান্সফার করবেন। তো একটা মাধ্যম থেকে অন্য মাধ্যমে ট্রান্সফার করার ক্ষেত্রে আপনি যে প্রোগ্রামের সহায়তা নিচ্ছেন তাকেই আমরা এপিআই বলছি।

আশা করি বিষয়টি বুঝতে পারছেন।

 

তাহলে অপারেটিং সিস্টেমের কার্যাবলী বিশ্লেষন করতে গিয়েও কি এপিআই বাবাজিকে খুঁজে পাওয়া সম্ভব?

জ্বি বস!

আপনি অপারেটিং সিস্টেম এ অনেক ফাংশন পাবেন যেখানে এপিআই (API) সেট করা আছে।

 

ব্যবস্যায়ীক কাজে এপিআই এর ব্যবহার

এপিআই এর ব্যবহার, বর্তমান সময় অনলাইন নির্ভর অনেক কোম্পানি রয়েছে। সেই সাথে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সেবা প্রদান করছে বিশ্বের লাখ লাখ প্রতিষ্ঠান।

বর্তমান বিশ্বের সেরা সার্চ ইঞ্জিন গুগল সর্বাধিক জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ফেইসবুক কি করছে তাদেরকে আরো স্মার্ট করার জন্য তৃতীয় পক্ষের সমর্থণ নিচ্ছে।

আমরা অনেক সময় একটি সাইটে গিয়ে লগইন কিংবা রেজিস্ট্রেশন করার সময় দেখি যে লগ ইন উইথ ফেসবুক কিংবা লগ ইন উইথ গুগল এরকম অপশন চলে আসে।

তার মানে ঐসব ওয়েবসাইট ফেসবুক এবং গুগলের সাথে আগে থেকেই কানেক্টেড রয়েছে।

এখন আপনি যদি সেখানে লগইন উইথ ফেসবুক কিংবা গুগল সিলেক্ট করেন,

তাহলে,

বোঝা যাচ্ছে যে, ইকমার্স শিপিংয়ে এপিআই এর গুরুত্ব অনেক। 

এটি এপিআইকে অনুসরণ করবে এবং কাঙ্খিত চাহিদা পূরণ করে দিবে। অর্থাৎ ফেসবুক কিংবা গুগলের মাধ্যমে সেই সাইটে লগইন অথবা রেজিস্ট্রেশন হয়ে যাবে।

 

 

ব্রাউজার বা অ্যাপ্লিকেশনে এপিআই!

আমরা বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্রাউজ করার সময় বিভিন্ন ব্রাউজার ব্যবহার করে থাকি। আমরা ধরে নিচ্ছি যে ফেসবুকে ভিডিও চ্যাট কিংবা ভয়েস চ্যাট ব্যবহার করবো।

অথবা,

হোয়্যাট্সঅ্যাপের ওয়েব ভার্সন ব্যবহার করবো। তো এর জন্য এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো আমাদের ডিভাইসের ক্যামেরা, অডিও স্পীকার ব্যবহার করার জন্য পারমিশন চাইবে।

যখন আমরা এক্সেস অনুমোদন দেব কেবলমাত্র তখনই ব্রাউজারের সাথে এগুলো কানেক্ট হয়ে যাবে এবং আমাদের কাঙ্খিত ফলাফল দিয়ে দিবে।

এই পুরো প্রসেসটা কিন্তু কমপ্লিট করবে অ্যাপিআই (API) নামক মহাশয়!

 

তাহলে,

এপিআই এর প্রয়োজনীয়তা?

উপরের সমস্ত কিছু জানার পরে আশা করি এপিআই (API) এর প্রয়োজনীয়তা নিয়ে বাড়তি কোন প্রশ্ন থাকার কথা নয়।

কম্পিউটার, মোবাইল, ট্যাবলেট, ল্যাপটপ প্রতিটা ডিভাইসে বিভিন্ন প্রোগ্রামকে কন্ট্রোল করার জন্য এপিআই ব্যবহৃত হয়।

আবার, আমরা ধরে নিচ্ছি যে কোন ব্যক্তি একটি  অ্যাপস তৈরি করল যেই অ্যাপসটি উইন্ডোজ, লিনাক্স এবং ম্যাক্সসহ অনেকগুলো অপারেটিং সিস্টেমে চলবে ।

এই অ্যাপসটার কোন আপডেট ভার্সন এনে ফ্রন্ট ইন্ড এপিআই এর সাথে সংযুক্ত করতে হবে। তাহলেই কেবল এটি সকল অপারেটিং সিস্টেম এ চলবে।

এক্ষেত্রে অ্যাপসটির মূল কাজ অটুট থাকবে। তবে এটি বিভিন্ন ডিভাইসের জন্য কার্যকরী হয়ে যাবে।

আশা করছি অ্যাপিআই কি এবং এর ব্যবহার, প্রয়োজনীয়তা নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকার কথা নয়।

মোবাইল ফোনে এপিআই

 

হ্যাঁ প্রশ্নটা সুন্দর তবে এখানে একটা বিষয় বোঝার আছে যে আমাদের কথা বলার সময় ইথার নামক এক বস্তুর প্রভাবে বায়ু মাধ্যমে কথাগুলো পোঁছে যায়।
এখন একটি মোবাইল ফোনে আমরা বিভিন্ন কাজ করতে পারি। যেমন এর মাধ্যমে ছবি উঠাতে পারি যা একটি অ্যাপসের মাধ্যমে ঘটে থাকে।
এটি এপিআই সিস্টেমে করা হয়। এমনি করে আমরা গান শুনে থাকি বিভিন্ন সফটওয়্যারের মাধ্যমে।

আপনার জন্য রিকমেন্ডেড পোস্ট,

ই-পাসপোর্ট কি? ই-পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম

সেখানেও এপিআই ব্যবহার করা হয়। ভিডিও কলে কথা বলি সেখানেও এপিআই এর ব্যবহার লক্ষণীয়।
তার মানে দাঁড়াল প্রযুক্তির অনেক ক্ষেত্রেই এপিআই সংযোজন করা হয়েছে। এর ফলে আমাদের প্রযুক্তিগত যোগাযোগ দ্রুত থেকে দ্রুততর হয়ে গেছে।
তাহলে বন্ধুরা আজ এ পর্যন্তই থাক। পরবর্তীতে দেখা হবে জীবন, তথ্য ও প্রযুক্তি নতুন এক অধ্যায়ে
সে পর্যন্ত ভাল থাকেন।
আল্লা হাফেজ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *